খাসজমিতে নারীর অধিকার’ বিষয়ক মতবিনিময় সভা

0

মর্জিনা বেগম,বিশেষ প্রতিবেদকঃ,’প্রাকৃতিক সম্পদ ও খাসজমিতে নারীর অভিগম্যতা ও অধিকার’- বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা রোববার সকালে বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, জাতীয় আয়ে নারীর গৃহকর্মের অবদানের স্বীকৃতি দেয়া হয় না। যদি এই আয় যোগ হতো তাহলে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে যেতো। তিনি আরও বলেন,খাসজমি বন্টনে ১০ শতাংশ নীতিমালা বহির্ভূত কাজ হয় এটা সত্য। তবে প্রভাবশালীরা যাতে ভূমিহীনদের প্রাপ্ত খাসজমি নিতে না পারে। তাদের পক্ষে রাখতে এ কাজ করা হয়। জলাশয় বন্টনের ক্ষেত্রে প্রকৃত মৎস্যজীবী সমিতির যারা সদস্য তাদের মাঝে দেয়া হয়। যদি কোন নারী মাছ চাষ করে এবং সমিতির সদস্য হয় তবে তাকে দেয়া হবে। ১৯৯৭ সালের নীতিমালা অনুযায়ী প্রাপ্ত খাসজমি কেউ বিক্রি করতে পারে না কিন্তু নীতিমালা অমান্য করে অনেকেই বিক্রি করে ফেলে। তবে রেকর্ড করতে পারে না। 

নাগরিক উদ্যোগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্য আলোচকগণ বলেন,খাসজমি বন্টনের ক্ষেত্রে গঠিত কমিটির সদস্যরা স্বজনপ্রীতি করে। যে কারনে খাসজমি সুষম বন্টন হয় না। অনেক নীতিমালা বা আইন থাকলেও কৃষি জমি সুরক্ষা আইন নেই। তাই জরুরী ভিত্তিতে এই আইন প্রনয়ণের দাবী জানানো হয়। এছাড়া নারীর ক্ষমতায়নে পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এই প্রতিবন্ধকতা দূর করতে হলে জাতীয় সংসদে নারীদের প্রতিনিধিত্ব থাকতে হবে। কেননা নারীকে পেছনে ফেলে এস.ডি.জি. অর্জন সম্ভব নয়। তাই সকল ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের সমঅধিকার নিশ্চিত করতে না পারলে কোন উন্নয়ন টেকসই হবে না। তাই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।
বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশনের সভাপতি বদরুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা করেন,জাগুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা আলী,উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জাহানারা পারভীন, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাবিনা ইয়াসমিন, আইসিডিএ এর প্রধান উপদেষ্টা আনোয়ার জাহিদ, নারী নেত্রী পুষ্প চক্রবর্তী, এড. হিরন কুমার দাস মিঠু,অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম মিলু,রান এর নির্বাহী পরিচালক মোঃ রফিকুল আলম, অধ্যক্ষ গাজী জাহিদ হোসেন, সাংবাদিক স্বপন খন্দকার প্রমুখ।

Share.

Leave A Reply