দুর্নীতি করে অবৈধভাবে অর্জিত সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে: দুদক কমিশনার

0

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশে কেউ দুর্নীতি করে পার পাবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দূর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কমিশনার মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক খান। বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে দুদকের ১৩৮তম গণশুনানি অনুষ্ঠানে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি বলেন, কেউ দুর্নীতি বা অনিয়ম করলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে এবং তাদের অবৈধভাবে অর্জিত সকল সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে।

সাম্প্রতিক সময়ে প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা সম্রাটসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে দুদক বমিশনার বলেন, সম্রাটের সহযোগী সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। তাদের কেউ ছাড় পাবে না। দুর্নীতি করে যারা অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন তাদের অনেকেই এখন দুদকের জালে আটকা পড়ে আইনের আওতায় এসেছেন। এমন আরো একশ’ জনের বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি জানান এই তালিকা আরো দীর্ঘ হবে।

গণশুনানিতে সাধারণ মানুষের একশ’ দশটি অভিযোগ লিপিবদ্ধ করা হয়। রূপগঞ্জ উপজেলা পোস্ট অফিস, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, স্বাস্থ্য বিভাগ, ভূমি অফিস, শিক্ষা অফিস সহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা এবং বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিরা দুদক কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে অভিযোগকারীদের মুখোমুখি হন।

এ সময়, বিভিন্ন অভিযোগকারী সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে সেবা না পাওয়াসহ অনিয়ম ও দুর্নীতির নানা বিষয় উপস্থাপন করলে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা তাদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের ব্যাখ্যা দেন। দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসব অভিযোগের বিষয় কাগজে কলমে চিহ্নিত করেন।

দেশে উপজেলা পর্যায়ে দুদক যে গণশুনানি কর্মসূচী শুরু করেছে তার প্রশংসা করেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাবেক সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল (অব:) কে এম শফিউল্লাহ। তিনি মনে করেন, এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকলে দেশে অন্যায়, দুর্নীতি অনেক কমে আসবে।

নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে গণশুনানি অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাবেক সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল (অব:) কে এম শফিউল্লাহ, দুদকের ঢাকা বিভাগীয় পরিচালক আকতার হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ এবং রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগমসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

Share.

Leave A Reply